1. admin@ultimatenewsbd.com : adminsr : Admin Admin
  2. afridhasan.ahb@gmail.com : Shah Imon : Shah Imon
বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:৪১ পূর্বাহ্ন

৭ আগস্ট নারায়ণগঞ্জের ৭১টি কেন্দ্রে চলবে গণটিকা প্রদান কার্যক্রম

নিজস্ব প্রতিবেদক, ultimatenewsbd.com
  • আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ৫ আগস্ট, ২০২১
  • ১৯৪

আগামী ৭ আগস্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে টিকা প্রদান কার্যক্রম চলবে। এই কার্যক্রম একদিন চলার পর আবার ১৪ আগস্ট গণটিকা প্রদান কার্যক্রম শুরু হবে।

বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) জেলা সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ ইমতিয়াজ জানান, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ২৭টি ওয়ার্ডে একটি করে কেন্দ্র এবং পৌরসভা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে আরও ৪৪টি অস্থায়ী টিকাদান কেন্দ্র স্থাপন করা হবে। এইসব কেন্দ্রে জাতীয় পরিচয়পত্র নিয়ে গেলেই টিকা গ্রহণ করা যাবে। প্রথম দিন গণটিকা কার্যক্রম পরিচালনা মতো পর্যাপ্ত টিকা জেলায় মজুদ রয়েছে বলে জানান জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের শীর্ষ এই কর্মকর্তা।

গত বুধবার (৪ আগস্ট) স্বাস্থ্য অধিদফতর জানায়, সবাইকে টিকার আওতায় আনতে ইউনিয়ন-ওয়ার্ড পর্যায়ে আগামী ৭ থেকে ১২ আগস্ট পর্যন্ত দেশব্যাপী কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনেশন ক্যাম্পেইন চলবে। করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে সারাদেশে গণহারে টিকা কার্যক্রম পরিচালনায় ৭ আগস্ট থেকে ১২ আগস্ট পর্যন্ত দেশব্যাপী ৬ দিনের ভ্যাকসিনেশন ক্যাম্পেইনের উদ্যোগ নেওয়া হলেও হঠাৎ করেই পরিকল্পনায় পরিবর্তন আনা হয়েছে। ৬ দিনের পরিবর্তে এখন মাত্র একদিন করা হবে এই ক্যাস্পেইন। এরপর ১৪ আগস্ট থেকে গণটিকা কার্যক্রম শুরু হবে।

জেলা সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ ইমতিয়াজ জানান, সিটি কর্পোরেশন, পৌরসভা এবং উপজেলা পর্যায়ে ইউনিয়ন পরিষদে অস্থায়ী কেন্দ্র স্থাপন করা হবে। সিটি কর্পোরেশনের প্রতি ওয়ার্ডে একটি করে কেন্দ্র থাকবে। অন্যদিকে ইউনিয়ন পর্যায়ে একটি ইউনিয়নে একটিমাত্র কেন্দ্র থাকবে। এইসব কেন্দ্রে কেবল জাতীয় পরিচয়পত্র নিয়ে গেলে টিকা গ্রহণ করা যাবে। এক্ষেত্রে পূর্বে রেজিস্ট্রেশন করে মোবাইলে ম্যাসেজ পাওয়া জরুরি নয়। তবে যারা পূর্বে রেজিস্ট্রেশন করেছেন এবং মোবাইলের ম্যাসেজে টিকা গ্রহণের তারিখ দেওয়া হয়েছে তাদের হাসপাতাল কেন্দ্রগুলোতে টিকা গ্রহণের নির্দেশনা দিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ।

তিনি আরও জানান, সিটি কর্পোরেশন এলাকায় মর্ডানার টিকা দেওয়া হবে। এছাড়া উপজেলা অর্থ্যাৎ ইউনিয়ন পর্যায়ে সিনোফার্মের টিকা দেওয়া হবে। একই সাথে হাসপাতাল কেন্দ্রগুলোতেও টিকাদান কার্যক্রম নিয়মিতভাবে চলবে। যারা অ্যাস্ট্রাজেনেকার প্রথম ডোজ টিকা গ্রহণ করেছেন কিন্তু দ্বিতীয় ডোজ এখনও গ্রহণ করেননি, তাদের ম্যাসেজ পাঠানো হবে। ম্যাসেজ অনুযায়ী নির্দিষ্ট কেন্দ্রে গিয়ে টিকা গ্রহণ করতে পারবেন বলে জানান ডা. ইমতিয়াজ।

তিনি আরও বলেন, করোনা রোগীদের চিকিৎসার জন্য জেলায় পর্যাপ্ত শয্যা রয়েছে। কোভিড ডেডিকেটেড নারায়ণগঞ্জ ৩০০ শয্যা হাসপাতালে দশটি আইসিইউসহ ১২০টি শয্যা রয়েছে। এছাড়া উপজেলা পর্যায়ে ২০টি করে আইসোলেশন শয্যা রয়েছে। সেখানে অক্সিজেন দেওয়ারও সুবিধা রাখা হয়েছে। জেলায় বিদ্যমান পরিস্থিতিতে পর্যাপ্ত শয্যা রয়েছে বলে দাবি তার।

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও খবর
© আল্টিমেট কমিউনিকেশন লিমিটেডের একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান   ***চলছে পরীক্ষামূলক কার্যক্রম***
Theme Customized BY LatestNews